বাংলাদেশে করোনার পরিস্থিতি দিন দিন খারাপের দিকে। আর এই কারনে শুরু থেকেই দেশের করোনার পরিস্থিতি লাগাম টানার জন্য সারা দেশে লকডাউন ঘোষনা করা হয়ে থাকে। আর সেই ঘোষিত লকডাউন চলছে এখনো। এ দিকে করোনা দুর্যোগের প্রায় দুই মাস ধরে কাজ না থাকায় অনেকেই সংকটে পড়েছেন। এ তালিকায় শোবিজের মানুষেরাও রয়েছে। তাদেরই একজন অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা।
মধ্যবিত্ত পরিবারের এ অভিনেত্রী নিজের উপার্জিত টাকা নিজের জীবনযাপনে ব্যয় করেন। অভিনয়ের পাশাপাশি একটি বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীও তিনি। সেখানকার পড়ালেখার খরচটাও নিজেই বহন করেন।

করোনার বিশেষ পরিস্থিতির কারণে আপাতত কাজ বন্ধ থাকায় উপার্জন নেই। তাই আর্থিক সংকট মোকাবেলায় বিকল্প উপায়ে অর্থ অর্জনের চেষ্টা করছেন ভাবনা।

ভাবনা বলেন, কাজ থাকলে তো আর্থিক সংকট হতো না। অল্পদিনের মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের সেমিস্টার ফি দিতে হবে। কারণ তারা অনলাইনের মাধ্যমে ক্লাস ও পরীক্ষা নিয়েছে। যেহেতু অভিনয় অঙ্গনে কাজ নেই তাই এখন বাসায় বসে ছবি আঁকছি। এই ছবিগুলো বিক্রি করে করোনায় অসহায়দের মধ্যে ত্রাণ দেয়ার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি।


এ দিকে করোনার কারনে একেবারেই বাইরে গিয়ে কাজ করতে নারাজ ভাবনা। তিনি রয়েছেন দেশের স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসার অপেক্ষায়। জানিয়েছেন দেশে যখন স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসবে তখন তিনি আগের থেকে বেশি বেশি করে কাজ করে এই সময়ের ক্ষতিটাকে পুষিয়ে নিবেন। এদিকে করোনার এমন পরিস্থিতির আগেই কয়েকটি নাটকে কাজ করেছিলেন এ অভিনেত্রী। নাটকগুলো এবারের ঈদের অনুষ্ঠানে বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলে প্রচারিত হবে।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display