সাম্প্রতিক সময়ের অন্যতম আলোচিত নাম সায়েদুল হক সুমন। তিনি ২০০৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ সম্পন্ন করার পর ২০০৯ সালে যুক্তরাজ্যের লন্ডনে চলে যান। সেখানে সিটি ইউনিভার্সিটি থেকে বার অ্যাট ল’ করেন। সুপ্রিম কোর্টের এ আইনজীবী এখন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর। আইনজীবী হলেও সুমন পরিচিতমুখ হয়ে উঠেছেন অনিয়মের বিরুদ্ধে তার ’ফেসবুক লাইভ আন্দোলন’র মাধ্যমে।
অনিয়মের বিরুদ্ধে ’ফেসবুক লাইভ’ আন্দোলন নিয়ে সায়েদুল হক সুমন বলেন, প্রযুক্তির এমন সদ্ব্যবহারের কোনো পূর্বপরিকল্পনা ছিলো না। শিক্ষাজীবন থেকেই আমি বিভিন্ন সামাজিক কাজের সঙ্গে জড়িত। কাজ করতে করতেই দেশে আধুনিক প্রযুক্তির প্রচলন ঘটে। মনে হচ্ছিলো ছোট একটা ভালো কাজ করে যদি প্রচার করা যায়, তাহলে আরও হাজারটা ভালো কাজ হবে। এক পর্যায়ে ধীরে ধীরে ফেসবুক লাইভে কথা বলার সাহস পাই। ভালো সাড়াও আসে সব জায়গা থেকে।
সম্প্রতি ব্যারিস্টার সুমন গন্ধযুক্ত ডাস্টবিনে নেমে বাচ্চাদের বাঁচানোর আহবান জানান। সুমন ফেসবুক লাইভে এসে বলেন, ’আমি যেখানে দাঁড়াইয়া আছি সেইটা একটা ময়লার ডাস্টবিন। এইটা ডাস্টবিন থাকতেই পারে। কিন্তু আমি এ কারণে লাইভে আসলাম এইটা একটা প্রাইমারি স্কুলের সামনে। একদমক মেইন গেইটের সামনে।’
ভিডিওতে তিনি আরও বলেন, ’১৫০০ বাচ্চা যে স্কুলএ পড়াশোনা করে, তাদের মুখে গেইটে ডাস্টবিনটা আছে। আপনি জজকোর্ট থেকে হাইকোর্ট যাওয়ার পথে গুলিস্তানে সৈয়দ নজরুল ইসলাম সড়কের সামনে নেই ডাস্টবিনটা পাবেন।’
এ সময় তিনি ডাস্টবিনটি ওই স্কুলের সামনে থেকে অপসারণ করার জন্য কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।
সুমনের ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন



বিডি২৪লাইভ