সারা বিশ্বে ছড়িয়ে ছিটে থাকা একেকটা প্রবাসী বাংলাদেশিরা আমাদের দেশের জন্য সম্পদ। তাদের মাথার ঘাম পায়ে ফেলে রোজগার করা প্রতিটা টাকা বাংলাদেশের অর্থনিতীর জন্য আর্শিবাদ স্বরুপ। কিন্তু সেই প্রবাসীরাই যেন বাংলাদেশে আসলে হয়ে পড়ে অনেক অসহায়। যেখানে এই সকল প্রবাসীদের যথাযোগ্য মর্যাদা দেয়া উচিত সেখানে এই সকল প্রবাসীরাই দেশে ফিরে শিকার হন অবহেলা আর মর্যাদাহীনতার। সম্প্রতি কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের ফয়েজ উল্লাহ মুরাদ (২২) নামক এক মালয়েশিয়া প্রবাসী দেশে ফিরে বাড়ি পৌঁছার আগেই অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে সর্বস্ব হারিয়েছেন।

খবর নিয়ে জানা যায়, ওই প্রবাসী তরুণ নাঙ্গলকোটের পেরিয়া ইউনিয়নের কাজীর জোড়পুকুরিয়া গ্রামের মাওলানা আলী হোসেনের ছেলে।


ক্ষতিগ্রস্ত প্রবাসী ফয়েজ উল্লাহ মুরাদ জানান, মঙ্গলবার ভোরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বিমানযোগে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নেমে সকাল ৭টায় আল বারাকার একটি বাসযোগে তিনি বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন। এসময় তার পাশের সিটে বসা ৪৫ বছর বয়স্ক একজন অজ্ঞাত লোক (প্রতারক) কথা বলতে বলতে তার সাথে সখ্য গড়ে তুলে। ওই প্রতারক ওমান থেকে ফিরেছেন বলে তাকে জানান। একপর্যায়ে মুরাদ অজ্ঞান হয়ে পড়েন।


বাসটি দুপুর ১২টার দিকে লাকসাম বাইপাস এলাকায় পৌঁছলে প্রতারক লোকটি মালামালসহ মুরাদকে গাড়ি থেকে নামিয়ে পার্শ্ববর্তী একটি হোটেলে নিয়ে তাকে কোল্ডড্রিংকস খেতে দেন। কিছুক্ষণ পর লাকসাম বাইপাস হাউজিং এস্টেট মসজিদের সামনে নিয়ে মুরাদকে ফ্রেশ হতে বলে। সরল বিশ্বাসে মুরাদ ফ্রেশ হতে গেলে প্রতারক লোকটি অত্যন্ত সুকৌশলে তার মালামালের ব্যাগ ও হ্যান্ডব্যাগ নিয়ে যায়। ওই প্রতারক মুরাদের নগদ ১ লাখ ২০ হাজার টাকা, ৩ ভরি স্বর্ণালংকার, অন্যান্য মালামাল ও ভিসা, পাসপোর্ট ও টিকেট নিয়ে যায়।

প্রবাসী ফয়েজ উল্লাহ মুরাদ জানান, ৪৫ দিনের ছুটি নিয়ে তিনি বিয়ে করার উদ্দেশ্যে দেশে ফিরেন। কিন্তু ভিসা, পাসপোর্ট, টিকেট, নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও মালামাল হারিয়ে তিনি সর্বশান্ত। এ বিষয়ে তিনি মসজিদের ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করে থানায় সাধারণ ডায়েরি করবেন বলে জানান।

প্রসঙ্গত, প্রতিবছর বাংলাদেশের অর্থনিতীর সিংহ ভাগ আসে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স থেকে। আর প্রবাসীদের পাঠানো এই রেমিটেন্সের হার দিন দিন বেড়ে হচ্ছে দ্বিগুন। প্রবাসীদের পাঠানো মিলিয়ন মিলিয়ন টাকা দিয়ে বাংলাদেশে দেখছে উন্নয়নের মুখ। কিন্তু সেই মর্মে প্রবাসীরা বাংলাদেশে পাচ্ছে না তাদে যথাযথ মর্যাদা। সরকার থেকে প্রবাসীদের উন্নয়নের জন্য নানা ধরনের পদক্ষেপের কথা বলা হলেও সে গুলো যেনো সীমাবদ্ধ থাকছে কাগজ কলমেই।