বাংলাদেশে এখন চলছে করোনা সংকট। আর শুধু সংকট বললেন ভুল হবে এখন চলছে দেশে ক্রান্তি কাল। করোনার কারনে দেশের লাখ লাখ মানুষ এখন হয়ে আছে দিশেহারা। ঠিক মত খেতে পারছে না দু’বেলা দু’মুঠো ভাত। আর এমন অবস্থায় দেশের সরকারের দেয়া নানা ধরনের ত্রাণ এবং সাহায্য সহযোগীতার অধিকাংশ চলে যাচ্ছে চেয়ারমেন মেম্বারদের পকেটে। যার ফলে জনগনের কাছে সে গুলো পৌছাচ্ছে না ঠিক মত ভাবে। আর এ সব নিয়েই সম্প্রতি নিজের ক্ষোভ ঝাড়ছিলেন নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহবান জানিয়ে বলেছেন, প্রণোদনা নামক প্রতারণঅ বন্ধ করুন, জনগনকে কঠিন নিরন্ন সময় থেকে রক্ষায় কার্যত ভূমিকা রাখুন।
তিনি বলেছেন, আপনি নিরন্ন কোটি মানুষকে খাবার পৌছে দিতে চেয়েছেন, তা লুট হয়েছে; ৬৫ ভাগ দরিদ্রর দেশে ১০ কোটি গরিবের মধ্যে মাত্র ৫০ লাখ মানুষের কাছে আড়াই হাজার টাকা করে সহায়তা দেয়ার কথা বলেছেন, তাও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা লুট করেছে; এমবস্থায় আমরা রাজপথে থেকে করোনা পরিস্থিতিতেও বাড়ি ভাড়া সমস্যার সমাধানের রোডমার্চ করছি-অনশন করছি; অনাহারী মানুষদেরকে খাবার পৌছে দিচ্ছি এব সরকারের পক্ষ থেকে দেয়ার দাবী জানাচ্ছি। কিন্তু তারপরও আপনার টনক কেন নড়ছে না, আমাদের কথা কি গণভবনের দেয়াল ভেদ করে ওপারে পৌছে না? যদি তাই হয়; তাহলে এই দেয়াল রেখে লাভ কি, দেয়াল ভাঙ্গুন, জনগনের জন্য নিবেদিত থাকুন।

১৭ মে বিকেল ৩ টায় অভূক্ত মানুষের পাশে সহায়তা বনাম লুটপাট বন্ধে করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি উপরোক্ত কথা বলেন।

সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এসময় প্রেসিডিয়াম মেম্বার ও জাতীয় সাংস্কৃতিকধারার উপদেষ্টা অধ্যাপক শুভঙ্কর দেবনাথ, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শান্তা ফারজানা, অনলাইন প্রেস ইউনিটির ভাইস চেয়ারম্যান নিলীমা চৌধুরী, মো. শরীফ ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. ইউসুফ উপস্থিত ছিলেন।

নেতৃবৃন্দ দ্রুত সময়ের মধ্যে দরিদ্র জনগোষ্ঠির কাছে সামাণ্য সহায়তা লুটপাটকারীদের গ্রেফতারের পাশাপাশি বাড়িভাড়া সমস্যা সমাধানে সরকারী ভর্তুকি ও ৫ কোটি মানুষকে কমপক্ষে ১০ হাজার করে টাকা ভোটার তালিকা দেখে দেয়ার দাবী জানান।


এ দিকে দেশের করোনার পরিস্থিতি থেকে এত শিঘ্রই রেহাই পাবে না বাংলাদেশবাসি। আর যা ইতিমধ্যেই বেশ ভালো ভাবে বোঝা যাচ্ছে। ইতিমধ্যে দেশে এখন করোনা রোগীর সংখ্যা ছাড়িয়েছে প্রায় ২৩ হাজারের কাছাকাছি। যার সংখ্যা দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে দেশ ব্যাপি। আর এমন অবস্থা চলতে থাকলে দেশের লকডাউন খুবসহসাই খুলবে না বলে ধারনা করা যায়।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display