আবারো সারা দেশের টক অব দ্যা টাউনে পরিনীত হয়েছে হেফাজতে ইসলামের নাম। আর এবার এই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী। সম্প্রতি তার নামে প্রকাশ পেয়েছে বেশ কিছু দুর্নীতির কথা। আর এ তথ্য প্রকাশ করেছেন খোদ সাবেক যুগ্ম মহাসচিব ও হেফাজতের অডিটর মাওলানা সলিমউল্লাহ নিজেই। এমন একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

যেখানে বলা হয়েছে, ৫ই মে শাপলা চত্বরে আন্দোলন চালানোর জন্যে বিএনপি নেতা সাদেক হোসেন খোকা যে ৫০ লাখ টাকা দিয়েছিলো সেই টাকার কোনো হিসেব দেয়নি হেফাজতের বর্তমান আমির জুনায়েদ বাবুনগরী।

তার চিকিৎসা বাবদ যে ২০ লাখ টাকা খরচ করেছে বাবুনগরী তারও কোনো হিসেব পায়নি হেফাজতে ইসলাম। এছাড়া আল্লামা শফি জুনায়েদ বাবুনগরীর হাতে যে ২৫ লাখ টাকা ক্যাশ দিয়েছিলো সেই টাকা কোথায় জমা হয়েছে তারও কোনো হিসেব দেয়নি বাবুনগরী। এতোগুলো টাকার একটা টাকাও ঢুকেনি হেফাজতের ফান্ডে, সব ঢুকেছে বাবুনগরীর ফান্ডে। এতোগুলো টাকা একবারে লোপাট করে দিলেন হেফাজতের আমির?

এদিকে সংগঠনের আরেক সাবেক যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মাঈনুদ্দিন রুহীও অভিযোগ করেছেন, তৎকালীণ আমির আল্লামা আহমদ শফীকে এড়িয়ে বর্তমান কমিটিতে স্থান পাওয়ারা খালি চেকের মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

২০১০ সালে নারী নীতির বিরোধিতা করে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতেই গঠন হয় কওমি মাদ্রাসাভিত্তিক সংগঠন হেফাজতে ইসলাম। তবে ২০১৩ সালে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে প্রতিষ্ঠা হওয়া গণজাগরণ মঞ্চের বিরোধিতা করে প্রচারে আসে সংগঠনটি।

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা আল্লামা আহমদ শফী মারা যাওয়ার কয়েক দিনের মধ্যেই কৌশলে আমির হন মাওলানা জুনায়েদ বাবুনগরী।

এ দিকে এই ভিডিওটি এখন সারা দেশের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে দাড়িয়েছে। মুহুর্তেই মধ্যে ভিডিওটি শেয়ার করেছেন হাজারো মানুষ। বিশেষ করে মানুষের মধ্যে এটা নিয়ে দেখা দিয়েছে নানা ধরনের মিশ্র প্রতিক্রিয়া। তবে এ নিয়ে এখনো মুখ খোলেনি হেফাজতে ইসলাম।



আরো পড়ুন

Error: No articles to display