বাঞ্ছিত কিংবা অবাঞ্ছিত কোনও কিছুই আমাকে আমার লক্ষ্য থেকে বিচ্যুত করতে পারবে না। কেননা সড়ক দুর্ঘটনা নিরসনে কাজ করতে গিয়ে আমি কাউকেই প্রতিপক্ষ মনে করি না। আমি চিন্তিত সড়ক ও সড়কের মানুষকে নিয়ে। বললেন ’নিরাপদ সড়ক চাই’-র চেয়ারম্যান ও চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন।
রোববার রাজধানীর ফুলবাড়িয়া টার্মিনালে এক সমাবেশ থেকে পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতারা ইলিয়াস কাঞ্চনকে দেশের সব বাস টার্মিনালে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন। পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতাদের এমন কথার পরিপ্রেক্ষিতে ইলিয়াস কাঞ্চন এ মন্তব্য করেন।
তিনি বলেন, আমি কাজ করছি সড়কের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে, সড়কের শৃঙ্খলা ফেরাতে, জনগণের মাঝে সচেতনতা আনতে, সকল চালক ভাইদের শারীরিক ও মানসিকভাবে গড়ে তুলতে, সকলে মিলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সড়ক দুর্ঘটনারোধ করতে।
চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, আমি বিশ্বাস করি এবং সবসময় বলেও থাকি সড়ক দুর্ঘটনার জন্য শুধুমাত্র চালকরাই দায়ী নয়, সড়ক দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে যে বা যারা দায়ী আমি তাদেরই কথা বলি।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ দিয়ে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, আমরা প্রচণ্ড আশাবাদী বর্তমান সরকারের আন্তরিকতা ও কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণে। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সড়ক দুর্ঘটনা নিরসনে যে ১৭ দফা নির্দেশনা দিয়েছেন তা বাস্তবায়নে সরকারের প্রতিটি সংস্থার তৎপরতা চোখে পড়ার মতো। পাশাপাশি সড়ক দুর্ঘটনারোধে নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) জনগণের সম্পৃক্ততা বাড়ে সেধরনের কর্মসূচিতে আরও বেশি করে উদ্যোগী হয়েছে। বআমি মনে করি এ জন্য সরকারি, বেসরকারি এবং সকল সামাজিক সংগঠন বিশেষ করে রোড সেফটি বিষয়ে কাজ করছেন সে সকল সংগঠনকে জনগনের মানসিকতা পরিবর্তনের বিভিন্ন ধরনের কর্মসূচি পালনে আরও তৎপর হয়ে উঠতে হবে।
উল্লেখ্য, সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন নিশচার ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুজ্জামান, মহাসচিব সৈয়দ এহসান-উল হক কামাল, যুগ্ম মহাসচিব লিটন এরশাদ, যুগ্ম মহাসচিব বেলায়েত হোসেন নান্টুসহ এই সংগঠনের অনেকেই। সূত্র:purboposhchim