বাজার থেকে পাঙ্গাস মাছ এনে রান্না করে বুফে পরিবেশন করার সময় হয়ে যায় সামুদ্রিক কোরাল মাছ! র‌্যাবের অভিযানে এমনটিই ধরা পড়ল রাজধানীর উত্তরার ৩নং সেক্টরের হাংরি ডাক চাইনিজ রেস্টুরেন্টে।
এ ধরনের প্রতারণার কারণে হাতেনাতে আটক করে প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজার মো. রুবেলকে তিন মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন র‌্যাব পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বিএসটিআইয়ের সহযোগিতায় র‌্যাব-১ সোমবার দুপুর থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন র‌্যাব সদর দফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম।

তিনি জানান, উত্তরার ৩নং সেক্টরের হাংরি ডাক চাইনিজ রেস্টুরেন্টে গিয়ে দেখা যায়, পাঙ্গাস মাছ কিনে চামড়া তুলে রান্না করে বুফে পরিবেশনের সময় কোরাল মাছ হিসেবে বিক্রি করা হচ্ছিল।

তাছাড়া রান্নায় ব্যবহৃত সব মসলা, ফ্লেভারসহ খাদ্যকে সুস্বাদু করার যত উপাদান পাওয়া যায় সবই ১-৩ বছর পূর্বে মেয়াদোত্তীর্ণ। এ জন্য ব্যবস্থাপক রুবেলকে তিন মাসের কারাদণ্ড এবং মাহবুব হাসান ও মো. শাকিল নামে দুইজনকে আট লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

অন্যদিকে একই এলাকায় অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে খাবার তৈরি করায় এবং বাসি-পচা খাবার বিক্রি করায় খাজানা রেস্টুরেন্টকে দেড় লাখ টাকা এবং হিমালয় রেস্টুরেন্টকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

একই এলাকার আলীবাবা সুইটস বেকারি বাসি মিষ্টি বিক্রি ও মিষ্টিতে তেলাপোকা পড়ে থাকতে এবং অত্যন্ত নোংরা পরিবেশে মিষ্টি সংরক্ষণ করতে দেখা যায়। এ জন্য দেড় লাখ টাকা জরিমানা করা হয় আলীবাবাকে।