পঁচা-বাসি খাবার সংরক্ষণ ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার তৈরি করায় রাজধানীর গুলশানের স্বনামধন্য রেস্টুরেন্ট টপ কাপিকে আট লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
বুধবার র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলমের নেতৃত্বে র‌্যাব-১, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ও বিএসটিআইয়ের যৌথ অভিযানে এ জরিমানা করা হয়। সাড়ে বেলা ১২টা থেকে বিকাল চারটা পর্যন্ত এই অভিযান চলে।
এসময় দেখা যায়, ’টপ কাপি’র রান্তাঘরে হাজার হাজার তেলাপোকা ঘুরে বেড়ায়। এই পরিবেশেই হয় রান্না, রাখা হয় খাবার। সেখানে রাখা খাবার আর বাসনকোসনে ঘুরে বেড়াতে দেখা গেছে তেলাপোকা।
অভিযান শেষে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম জানান, তারা গুলশান-২ এভিনিউয়ের টপ কাপিতে গিয়ে রান্নাঘরের পরিস্থিতি নাজুক দেখতে পান। ’সেখানে নোংরা ও অপরিষ্কার পরিবেশে রান্না হচ্ছে বিভিন্ন খাবার। সেখানে তেলাপোকার এক মহা সমাবেশ। সকল ধরনের খাবারের ওপর এবং থালা বাসনে শতাধিক তেলাপোকার ছোটাছুটি করছিল। তাদের প্রতিটি ফ্রিজে প্রচুর মৃত তেলাপোকাও দেখা যায়।’
ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, ’ধারণা ছিল না গুলশানের মতো ভিআইপি এলাকার রেস্টেুরেন্টের পরিবেশ এমন হবে। সেখানে খাবারের পর উচ্ছিষ্ট হাড়গুলো সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছে ফ্রিজে। এছাড়া রান্না করা মাংস রাখা হয়েছে ফ্রিজে কাঁচা রক্ত মাখা মাংসের সাথে। যা আবারও রান্নার জন্য প্রস্তুত করা হতো।’
সারোয়ার আলম বলেন, ’প্রতিষ্ঠানটিকে আট লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া তিন দিন সময় দেওয়া হয়েছে, অবস্থার পরিবর্তন না হলে তাদের বড় ধরনের জরিমানা করা হবে বলে সতর্ক করা হয়েছে।’
অভিযানের শেষে টপ কাপির ব্যবস্থাপক নজরুল ইসলাম উল্টো গণমাধ্যমকর্মীদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেন। নিজের প্রতিষ্ঠানের রান্নাঘরের করুণ পরিস্থিতি নিয়ে তার কোনো কথা নেই। তবে বলেন, ’ভ্রাম্যমাণ আদালত এলেই সবাইকে জরিমানা করে। সাথে যেসব টিভির ক্যামেরাম্যানরা আসে তারাও ম্যাজিস্ট্রেট হয়ে যান।’
অন্যদিকে দুপুর দেড়টার দিকে রাজধানীর ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে অভিযান চালায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর

বিডিমর্নিং