রাজধানীর মহাখালী ফ্লাইওভারে গাড়িচাপায় সেলিম ব্যাপারী নিহত হওয়ার ঘটনায় নোয়াখালী-৪ আসনের এমপি একরামুল করীম চৌধুরীর পক্ষ থেকে তার স্ত্রীকে ২০ লাখ টাকার অনুদান দেয়া হয়েছে। একরামুলের ছেলে শাবাবের বিরুদ্ধে গাড়িচালক সেলিমকে চাপা দেয়ার অভিযোগ ছিল।
সেলিমের ভগ্নিপতি আবদুল আলিম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ বিষয়ে গত কয়েকদিন ধরে আলোচনা হয়েছে। আজ সেলিমের স্ত্রী জায়না বেগমের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ২০ লাখ টাকা দেয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে মহাখালীর ডিওএইচএসের অফিসে সবার উপস্থিতিতে আলোচনা হয়। এমপির পক্ষে যারা এসেছিলেন, তারা আমাদের ২০ লাখ টাকা দিয়েছেন। মামলাটি তুলে নেয়া হবে।

তবে সেলিমের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেয়া হলেও রোববার সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত মামলাটি তুলে নেয়নি তার পরিবার।

এর আগে মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর মহাখালীর জাহাঙ্গীর গেট সংলগ্ন ফ্লাইওভারে গাড়িচাপার ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনার পর গাড়িটি দ্রুত এসে সংসদ ভবনের উল্টো দিকের ন্যাম ফ্ল্যাটে ঢুকে যায়। গাড়িটিকে অনুসরণ করেন একজন মোটরসাইকেল ও আরেকজন প্রাইভেটকার আরোহী। পরে ন্যাম ফ্ল্যাট ও এর আশপাশের সিকিউরিটি গার্ডরা জানান গাড়িটি নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করীম চৌধুরীর। এটি তার স্ত্রী ও নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলার চেয়ারম্যান কামরুন্নাহার শিউলির নামে রেজিস্ট্রেশন করা।

এ ঘটনায় কাফরুল থানায় ’অজ্ঞাত’ আসামির বিরুদ্ধে একটি মামলা করা হয়। তবে ’সুনির্দিষ্ট তথ্য প্রমাণের অভাবে’ একরামুলের ছেলে শাবাব চৌধুরীকে অভিযুক্ত করেনি পুলিশ।

সেলিম ব্যাপারী মহাখালীর ডিওএইচএসে নায়ার প্রোপার্টিজের একটি গাড়ি চালাতেন।

News Page Below Ad