কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর আবদুল কাদের সিদ্দিকী বলেন, নির্বাচন কমিশন ঠিকভাবে চলছে না। নির্বাচন কমিশন নির্বাচন যে ৭দিন পিছিয়ে ৩০ ডিসেম্বর নির্ধারণ করেছেন সেটা অন্যায় এবং সরকারের আহ্বানে পেছানো হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন।
মঙ্গলবার (১৩ নভেম্বর) ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠক থেকে বেরিয়ে আসার পর সাংবাদিকদের সামনে এই মন্তব্য করেন তিনি।
কাদের সিদ্দিকী বলেন, দেশ সম্পুর্ণ অনিয়মে চলছে। আমরা সেটা নিয়মে আনতে চাই। নির্বাচন কমিশন ঠিক চলছে না। তারা যে নির্বাচন ৭দিন পিছিয়েছে সেটা অন্যায়। এটা তো সরকারের আহ্বান। বদরুদ্দোজা চৌধুরীর আহ্বান। আমরা তো এক মাস চেয়েছি। দেশের মানুষ এক মাস পেছানোর কথা বলেছে।
তিনি বলেন, প্রত্যেকটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে রাজনৈতিক দলগুলোর সাথে আলোচনা করে নেয়া হয়। কিন্তু এই নির্বাচন কনিশন সেটা করেনি। সে জন্য আমার সন্দেহ হয় প্রধান নির্বাচন কমিশনার ভালোভাবে নির্বাচন করতে পারবেন কিনা। এই সন্দেহ এখনও মানুষের মধ্যে আছে।
কাদের সিদ্দিকী আরো বলেন, অনেকের ধারণা সরকার ভোট নিয়ে যাবে। আমার ধারণা, সরকার ভোটে টিকতেই পারবে না। চলমান রাজনীতি নিয়ে আলোচনা করতে আজ দুপুর ১২টায় ড. কামাল হোসেনের চেম্বারে বৈঠক শুরু হয়।
ড. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে বৈঠকে উপস্থিত আছেন ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র ও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর আবদুল কাদের সিদ্দিকী, গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফা মোহসীন মন্টু, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন ও গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী।