বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যদের মধ্যে জমির উদ্দিন সরকার ও লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান এবারের নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন না।
জমির উদ্দিন সরকার জাতীয় সংসদের স্পিকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি মোট চারবার এমপি হয়েছেন। তবে ২০০৮ সালের নির্বাচনে তিনি হেরে যান।
আর মাহবুবুর রহমান সেনাপ্রধান পদ থেকে অবসর নিয়ে বিএনপির রাজনীতিতে যোগ দেন। ২০০১ সালের নির্বাচনে তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেও ২০০৮ সালের নির্বাচনে ধানের শীষ নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত হন।
সাবেক স্পিকার জমির উদ্দিন সরকারের নির্বাচনী আসন পঞ্চগড়-১ থেকে এবার তার ছেলে নওশাদ জমির প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। তিনি বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক।
আর সাবেক সেনাপ্রধান মাহবুবুর রহমানের আসন দিনাজপুর-২ থেকে এবার ধানের শীষ নিয়ে লড়বেন মঞ্জুরুল ইসলাম। তিনি জেলা বিএনপির নেতা।
এ ব্যাপারে মাহবুবুর রহমান জানান, আমি অনেক আগে থেকে বলে আসছি নির্বাচন করছি না। বয়স হয়ে গেছে।
জমির উদ্দিন সরকার জানান, আমার বয়স হয়েছে। আমি নির্বাচন করছি না। আমার ছেলে নির্বাচন করবে।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display