পশ্চিমা সংবাদমাধ্যম সিএনএন-বিবিসি’র বিরুদ্ধে বাংলাদেশের নির্বাচন সর্ম্পকে ’ভুল ব্যাখ্যা’ দেওয়ার অভিযোগ এনেছেন প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার ছেলে ও তার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। সোমবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে নিজের ভেরিফাইড পেজে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে তিনি একথা জানান।
বিদেশি পর্যবেক্ষকরা নির্বাচনকে শান্তিপূর্ণ বলে জানিয়েছে উল্লেখ করে জয় বলেন, আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকরা সবাই অনুষ্ঠিত নির্বাচনকে নিরপেক্ষ, বিশ্বাসযোগ্য বলে রায় দিয়েছেন। তবে এটা হতাশাব্যঞ্জক যে, পশ্চিমা গণমাধ্যম সিএনএন ও বিবিসি আমাদের নির্বাচনকে ভুল ব্যাখ্যা দিচ্ছে।
ভোটের ফলাফল প্রসঙ্গে জয় বলেন, চূড়ান্ত ফলাফল অনুসারে ২৯৯টি আসনের মধ্যে আওয়ামী লীগ ২৪৬টি, জাতীয় পার্টি ২৩টি, বিএনপি-জামাত ১০ ও অন্যান্য দলগুলো ৭টি আসন পেয়েছে।
এছাড়া, নির্বাচনে মোট ৬৬% ভোটার ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।
জয় বলেন, গণমাধ্যমগুলোর মতে রেজিস্টার্ড ১০ কোটি ৪১ লাখ ৯০ হাজার ৪৮০ জন ভোটারের মধ্যে আনুমানিক ৬ কোটি ৮৭ লাখ ৬৫ হাজার ৭১৬ জন ভোট দিয়েছেন। অর্থাৎ জাতীয় নির্বাচনে শতকরা ৬৬ ভাগ ভোট পড়েছে। নির্বাচনে ৬০-৭০ ভাগ ভোটারের উপস্থিতি ঐতিহাসিক। সামরিক সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ায় ২০০৮ সালে ভোটারের আধিক্য আরো বেশি ছিল।
নির্বাচনি শৃঙ্খলা বিষয়ে জয় জানান, সারাদেশে ৪০ হাজার ১৯৯ টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে মাত্র ২২টি কেন্দ্রে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সাথে সাথে ভোট কেন্দ্রগুলোর ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। নির্বাচনে এ ধরনের অনিয়মের হার শতকরা মাত্র ০.০৫ ভাগ। যেকোন সময়ের চেয়ে এটি কম।
সজীব ওয়াজেদ জয় তার স্ট্যাটাসে আরো বলেন, কোথাও কোথাও সংঘর্ষ ও ১৭ জনের নিহত হবার ঘটনা ঘটেছে। শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব থাকে আইনপ্রয়োগকারী দলের এক সদস্য জামায়াত-বিএনপি কর্মীদের দ্বারা নিহত হয়েছেন। এছাড়া, সহিংসতায় আওয়ামী লীগের ৯ কর্মী, বিএনপি-জামায়াতের ৭ ও জাতীয় পার্টির ১ কর্মীর মৃত্যু হয়।
bd-journal