থাই গুহায় অভিযান শেষে ফিরে আসা ডুবুরির শ্বাসরুদ্ধকর অভিজ্ঞতা ডেনিস ডাইভিং প্রশিক্ষক ইভান কারাডিজিক। থাইল্যান্ডের গুহায় থেকে আটকে পড়া ফুটবল দলটির উদ্ধার অভিযানে নিয়োজিত আছেন তিনি। থাই ও আন্তর্জাতিক ডুবুরিদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে তিনি দুর্গম অভিযানে অংশ নিচ্ছেন ইভান।
শ্বাসরুদ্ধকার উদ্ধার অভিযানের অভিজ্ঞতা নিয়ে মঙ্গলবার (১০ জুলাই) তিনি বিবিসির সঙ্গে কথা বলেছেন।
ইভানের কথায় জানা যায়, আটকে পড়া কিশোরদের এমন একটি কাজ করতে বলা হয়েছিল যেটি তারা তাদের জীবনে করেনি। ১১ বছর বয়সের গুহা থেকে ডুব দিয়ে বের হয়ে আসা কারো জন্যই স্বাভাবিক ঘটনা নয়।
তিনি বলেন, আমরা এমন একটি শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতিতে গুহার মধ্যে ডুব দিয়ে শিশুদের বের করছি যেখানে যেকোনো ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। গুহায় আটকে থাকা পানির নিচে কোন কিছুই দৃশ্যমান নয়, সঙ্গে থাকা টর্চের আলোই একমাত্র ভরসা। দীর্ঘ ক্লান্তিকর উদ্ধার অভিযানে তাই সবধরনের আতঙ্ক নিয়েই আমরা শঙ্কিত ছিলাম। উদ্ধার সরঞ্জামাদির ত্রুটি হওয়ার ভয়ও ছিল।
শিশুদের মানসিকতার ভূয়সী প্রশংসা করে ইভান জানান, এই শিশুরা শক্ত মনের অধিকারী। অবিশ্বাস্য তারা। তারা যে কতটা শান্ত ও স্মার্ট সেটি আমি এখনো বুঝতে পারি না।
ইভান ডেনিস একটি ডাইভিং প্রশিক্ষণ কোম্পানির মালিক। খো তাও দ্বীপে তিনি আগ্রহীদের ডুবুরি হওয়ার প্রশিক্ষণ দেন। গত সপ্তাহ থেকে তিনি স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে গুহার উদ্ধার অভিযানে অংশ নিয়েছেন।
উল্লেখ্য, থাইল্যান্ডের চিয়াং রাই এলাকার থাম লুয়াং গুহায় ১৭ দিন ধরে আটকে ছিলেন ওয়াইল্ড বোরস ফুটবল ক্লাবের পড়া ১২ কিশোর ও তাদের কোচ। গত দুই দিন সেখানে উদ্ধার অভিযান চালিয়ে ৮ কিশোরকে উদ্ধার করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বাকী ৪ কিশোর ও তাদের কোচকে উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।