রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় নির্মাণাধীন ভবনের আসবাবপত্র ও বালিশ কেনাসহ সেগুলোর বহন খরচ নিয়ে সীমাহিন দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। ইতিমধ্যে ব্যাপক এই দুর্নীতির অভিযোগ খতিয়ে দেখার জন্য দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়।
কিন্তু ব্যাপারটি নিয়ে মোটেও বিস্মিত নন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল। এ বিষয়ে তিনি তাঁর ফেসবুকে একটা স্ট্যাটাস দিয়েছেন। স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হল:

অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুলের ফেসবুক স্ট্যাটাস:

বালিশ নিয়ে এতো হৈ চৈ, আমি কোন কিছু লিখলাম না কেন?
লিখিনি কারন আমি খুব অবাক হইনি এতে।
যে দেশে বিনা ভোটে জিতে পাঁচ বছর ক্ষমতায় থাকা যায়, এরপর আরো পাঁচ বছর থাকার ব্যবস্থা করা যায় আগের রাতে ভোট করে, সেদেশে সব সম্ভব।

রানা প্লাজার ধ্বংসস্তুপ থেকে ছাব্বিশ দিন পর তরতাজা রেশমাকে উদ্ধার, বাংলাদেশে ব্যাংকের ভল্ট থেকে টাকা লোপাট, মুক্তিযোদ্ধার মেডেলের সোনায় খাদ, বালিশকান্ড-এরকম আরো বহু উদ্ভট ঘটনার চেয়ে অনেক বড় তেলেসমাতি হচ্ছে ১৬ কোটি লোককে পরপর দুটো নির্বাচনে ধাপ্পা দিতে পারা। এমন তেলেসমাতি করা সম্ভব যে দেশে সেখানে জবাবদিহীতা থাকে না, থাকে না কোন সততার তাগিদ, বিচারের ভয়।
বালিশকান্ড শুধু আমাদের একটু ইঙ্গিত দিল, কি ভয়াবহ লুটতরাজ চলছে এদেশে জনগনের সম্পদ নিয়ে।

সূত্র;ডেইলি ক্যাম্পাস