নজরুল ইসলাম। যিনি আসিফ নজরুল নামে ব্যাপক পরিচিত। বেসরকারি টেলিভিশন গুলোর টক শো অনুষ্ঠানগুলোর জনপ্রিয় মুখ ও বয়াক্তিত্ব। তিনি বেশ সাহসিকতার সাথে তার বক্তব্যগুলো তুলে ধরেন। নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের জামাই হিসেবেও সমাজে ব্যপক সমাধিত হয়ে থাকেন আসিফ নজুরল। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তিনি সবসময় বেশ সরব থাকেন। কথা বলে থাকেন সমসাময়িক প্রায় সকল বিষয়সমুহ নিয়ে। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদকে নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। ড. আসিফ নজরুলের ফেসবুকে স্ট্যাটাসটি হুবহু পাঠকদের উদ্দেশে তুলে ধরা হলো-


’আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ একদিক দিয়ে সার্থক। লেখা লিখবেন আর কোন তর্ক বিতর্ক বা আলোচনা হবে না, এরমধ্যে দিয়ে আমাদের চিন্তা আর মনন একটুও আন্দোলিত হবে না- এমন লেখার চেয়ে শাড়ী নিয়ে সায়ীদ স্যারের লেখার সার্থকতা বেশী।

আমি ভাবি এমন গভীর পড়াশোনা, নিজম্ব বিশ্লেষন আর অকপট উচ্চারণ যার আছে তিনি একটু দু:শাসন আর মানুষের দুরাবস্থা নিয়ে লিখেন না কেন?


রবীন্দ্রনাথ-নজরুলদের মতো নিঁখাদ সাহিত্যিকরা পারলে আমাদের আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ আর অধ্যাপক আনিসুজ্জামানা স্যাররা পারেন না কেন?
আগে তো দেখতাম পারতেন, একটু আধটু হলেও।’

উল্লেখ্য, আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ বাংলাদেশের একজন শিক্ষাবিদ, সাহিত্যিক ও সমাজসংস্কারক। তিনি ষাটের দশকে একজন প্রতিশ্রুতিময় কবি হিসেবে পরিচিতি পান। সে সময় সমালোচক এবং সাহিত্য-সম্পাদক হিসাবেও তিনি অবদান রেখেছিলেন। তার জীবনের শ্রেষ্ঠ কীর্তি বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র যা চল্লিশ বছর ধরে বাংলাদেশে ’আলোকিত মানুষ’ তৈরির কাজে নিয়োজিত রয়েছে। ২০০৪ সালে তিনি রোমেন ম্যাগসেসে পুরস্কার লাভ করেন।