মহাজোটের মনোনয়ন নিয়ে বিকল্প ধারা মহাসচিব আবদুল মান্নানকে ’কিছু না বলতে’ অনুরোধ করেছেনন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।
শুক্রবার দুপুরে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক  কার্যালয়ে এই অনুরোধ করেন ক্ষমতাসীন দলের নেতা।
বেলা ১২টার পর নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করতে দলীয় প্রার্থীদের চিঠি দেন ওবায়দুল কাদের। এরপর সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তিনি। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর শেষ করে সংবাদ সম্মেলনস্থল ছেড়ে গেলে সাংবাদিকরা বিকল্পধারা মহাসচিব আবদুল মান্নানকে ’কিছু বলতে’ অনুরোধ জানান।
মান্নান  তার দলের নির্বাচন ও আসন নিয়ে কথা বলার শুরু না করতেই আবার সংবাদ সম্মেলনস্থলে উপস্থিত হন ওবায়দুর কাদের। তিনি তখন বলেন, ’মান্নান ভাই..আমি কিন্তু ব্রিফ করেছি মহাজোটের পক্ষ থেকে। এখন কিছু বলবেন না।’
কিছুটা ইতস্তত আবদুল মান্নান সাংবাদিকদের বলেন, ’ঠিক আছে...পরে বক্তব্য রাখব।’
পরে আওয়ামীলীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলীকে নিয়ে ধানমন্ডি কার্যালয় থেকে বেরিয়ে আসেন মান্নান।
এ সময় তাদের ঘিরে রাখা আওয়ামী লীগের কর্মীরা নৌকা প্রতীকের পক্ষে স্লোগান দিতে থাকে।
পরে ঢাকাটাইমসকে আবদুল মান্নান বলেন, ’না না সেটা কেন হবে, আমি তো কথা বলেছি। সেখানে আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলন ছিল। আমারতো বলার কিছু নাই সেখানে।’
’আমাদের আপাতত তিনটা দিয়েছে। আমরা আরো পাব। কারণ, আমাদের আরো উইনিং সিট রয়েছে। আলোচনা চলছে, আপনারা শিগগিরই জানবেন।
বিএনপির সঙ্গে ঐক্যফ্রন্ট গঠনের আলোচনায় থাকা বিকল্পধারার চেয়ারম্যান একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী তার জোট যুক্তফ্রন্ট নিয়ে যোগ দিয়েছেন মহাজোটে।
আগের দিন মান্নান দাবি করেন, তারা সাতটি আসন পেয়েছেন। এগুলো হলো: মুন্সিগঞ্জ-১, মৌলভীবাজার-২, সাতক্ষীরা-৪, লক্ষ্মীপুর-৪, নীলফামারী-১, সিলেট-৬, এবং সুনামগঞ্জ-১। এর বাইরে মানিকগঞ্জ-২ এবং চট্টগ্রাম-২ আসনের জন্য আলোচনা চলছে বলে জানান তিনি।
তবে ওবায়দুল কাদের আজ জানান, তিনটি আসন দেওয়া হয়েছে বিকল্পধারাকে। এগুলো হলো মুন্সিগঞ্জ-১, মৌলভীবাজার-২ এবং লক্ষ্মীপুর-৪।