তোষামোদি না করার জন্য ময়মনসিংহ–৯ (নান্দাইল) আসনের সাংসদ আনোয়ারুল আবেদীন খান সর্বসাধারণের উদ্দেশে কিছু প্রচারপত্র (লিফলেট) ছেড়েছেন। ওই প্রচারপত্রে তাঁর নির্বাচনী এলাকার অতি–উৎসাহী লোকজনের প্রতি আটটি বিষয় খেয়াল রাখার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন। প্রচারপত্রটি বিভিন্ন লোকের হাতে হাতে ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেখা গেছে।
প্রচারপত্রের শুরুতে আনোয়ারুল আবেদীন খান তাঁকে নির্বাচিত করার জন্য এলাকার ভোটারদের প্রতি অভিনন্দন জানিয়েছেন। এরপর আটটি অনুচ্ছেদে বিভিন্ন বিষয় যুক্ত করে তা মেনে চলার জন্য সবাইকে অনুরোধ জানিয়েছেন। অনুচ্ছেদগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে সংবর্ধনা দেওয়ার সময় ক্রয় করা ফুলের তোড়া, ক্রেস্ট, সোনা বা রুপার তৈরি নৌকা বা কোটপিন, স্তুতিবাক্যভরা মানপত্র দেওয়া যাবে না। পূরণ করার মতো কোনো দাবি থাকলে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শুধু লিখিতভাবে তাঁকে জানানোর অনুরাধ করেছেন। রাজনৈতিক সংগঠন ছাড়া বেসরকারি সংগঠন বা স্থানীয় সরকারের কোনো প্রতিষ্ঠান জনগণের টাকা খরচ করে তাঁকে (সাংসদ) স্বাগত জানানোর জন্য তোরণ নির্মাণ করতে পারবে না। তাঁকে স্বাগত জানাতে শিক্ষার্থীদের লাইন করে দাঁড় করিয়ে রাখলে তিনি সেই অনুষ্ঠান বয়কট করবেন। তাঁর কোনো অনুষ্ঠানে জনগণের অর্থে বোতলজাত পানি ও মুখরোচক খাবার সরবরাহ করা যাবে না। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের দিয়ে কোনো দাবি উত্থাপন না করিয়ে সরাসরি কর্তৃপক্ষ বা অভিভাবকদের মাধ্যমে তা জানানোর অনুরোধ করেছেন। এ ছাড়া সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী ছাড়া সাধারণ মানুষ তাঁকে যেন ’স্যার’ সম্বোধন না করেন।
আনোয়ারুল আবেদীন খান বলেন, তিনি নান্দাইলের সর্বস্তরের জনগণের প্রতিনিধি। দেশ ও জনগণের জন্য নির্মোহভাবে কাজ করার জন্য তিনি শপথ নিয়েছেন। তাই অতীতের মতো সামন্তপ্রভু বা জমিদারের মতো আচরণ করতে চান না তিনি। দশম জাতীয় সংসদ সদস্যের অভিজ্ঞতার আলোকে তিনি এ বিষয়গুলো আগেভাগেই জানিয়ে দিতে চান।
সূত্র:prothom-alo