দোকানটির নাম ইন্দ্রমোহন সুইটস। খুলনা মহানগরীর বড় বাজারে অবস্থিত। বেশ নাম রয়েছে দোকানটির। খুলনা ভ্রমণে গেলে এখানের মিষ্টি খেতে কেউ ভুল করেন না। যেমনটি করেননি বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার।
গত ১৩ ফেব্রুয়ারি খুলনা সফরে যান রবার্ট মিলার। সফরকালে তিনি বাংলাদেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে অবস্থিত এই জেলার কিছু জায়গা ঘুরে দেখেন। এ সময় তিনি শত বছর বয়সী ইন্দ্রমোহন সুইটসে যান। সেখানে গিয়ে মিষ্টির স্বাদ গ্রহণ করেন। তার সেই ছবি বাংলাদেশের মার্কিন দূতাবাসের ফেসবুক পেজে আপলোড করা হয়।
কলাপাতায় ইন্দ্রমোহনের মিষ্টি খেয়ে মুগ্ধ মার্কিন রাষ্ট্রদূত মিলার
মিষ্টি বানানো দেখছেন মিলার। ছবি: আশিক রুশদি
মিলার জানান, খুলনায় এসে তিনি অভিভূত। এখানকার মানুষের ভালোবাসায় মুগ্ধ তিনি। এসময় মিলার ইন্দ্রমোহন সুইটসের প্রশংসা করেন।
১৮৯০ সালে চালু করা হয় ইন্দ্রমোহন সুইটস। এখানের বৈশিষ্ট্য হলো প্লেট আর স্পুন চলে না। কলাপাতায় মিষ্টি খেতে দেওয়া হয়। আর তা হাত দিয়ে খেতে হয়। তাই মিলারকেও কলাপাতায় মিষ্টি নিয়ে হাত দিয়ে খেতে দেখা যায়। লোকে বলে, যারা মিষ্টি আদৌ পছন্দ করেন না, তারাও ইন্দ্রমোহনের চার-পাঁচটি মিষ্টি খেয়ে নিতে পারেন।
গত বছরের ১৮ নভেম্বর রবার্ট মিলার ঢাকায় আসেন। তিনি মার্শা বার্নিকাটের স্থলাভিষিক্ত হন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গত বছরের জুলাই মাসে মিলারকে ওই পদের জন্য মনোনীত করেন। যুক্তরাষ্ট্রের সিনেট তার নিয়োগ অনুমোদন করে।
কলাপাতায় ইন্দ্রমোহনের মিষ্টি খেয়ে মুগ্ধ মার্কিন রাষ্ট্রদূত মিলার
ইন্দ্রমোহন সুইটসের সামনে মিলার ও তার সঙ্গীরা। ছবি: আশিক রুশদি
মিলার ১৯৮৭ সালে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরে যোগ দেন। ২০১১ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে যুক্তরাষ্ট্রের কনসাল জেনারেলের দায়িত্ব পালন করেন। মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয় ও ইউনাইটেড স্টেটস মেরিন কপস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি।

সূত্র:পিবিডি