ফাইল ফটো
ভোট ডাকাতি, জবরদখল ও হামলা-হুমকির মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনের ফলাফল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে নির্ধারিত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস-চেয়ারমান শামসুজ্জামান দুদু।
আজ বুধবার (১৩ মার্চ) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। আলোচনা সভার আয়োজন করেছেন বাংলাদেশ জাতীয় দল।
শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ’ডাকসু নির্বাচন তো হয় নাই। এখানে আবার ভোটের সংখ্যা কি? কে বেশি, কে কম, কার কত ভোট এসব আলোচনা কেন? ভোট তো হয়নি, প্রধানমন্ত্রী যা চে‌য়ে‌ছে, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় যা চেয়েছে তাই হয়েছে। এটা কি আমাদের সময়ের বিশ্ববিদ্যালয়, এটা কি বায়ান্নোর আন্দোলনের বিশ্ববিদ্যালয়, এটা কি ঊনসত্তরের বিশ্ববিদ্যালয়, একাত্তরের বিশ্ববিদ্যালয়, নব্বইয়ের বিশ্ববিদ্যালয়, এটা এখন শেখ হাসিনার আমলের বিশ্ববিদ্যালয়।’
ডাকসু নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ’নূরকে আনা হয়েছে এটা নিয়ে এত সম্মান করার কিছু নেই। এটা ছাত্রলীগেরই একটা অংশ। সকালে এক কথা বলে, দুপুরে এক কথা বলে, বিকেলে আরেক কথা বলে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আমরা ছিলাম, যা বলেছি তাই করেছি। ’৯০ এর আগে ডাকসু নির্বাচনে কারা জিতেছিল? ছাত্রদল। তাদেরকে বিশ্ববিদ্যালয় ঢুকতে দেওয়া হয়নি। যারা সর্বশেষ ডাকসুর পদে ছিল তাদেরকে বিশ্ববিদ্যালয় ১২ বছর ঢুকতে দেওয়া হয়নি।
ছাত্র সমাজকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ’ছাত্র সমাজকে উঠে দাঁড়াতে হবে ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে। আমি বলছি না এটা খুব সহজ লড়াই। এ লড়াইটির প্রতিটি পদক্ষেপ হবে হিসাবি, প্রতিটি কৌশল হতে হবে সুচিন্তিত প্রতিটি লড়াই হবে ভয়হীন, তাহলে আপনারা জয় লাভ করতে পারবেন।
নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, ’তারেক রহমানকে যদি দেশে ফিরিয়ে আনতে হয় তাহলে এই সরকারের পরিবর্তন ছাড়া তা সম্ভব নয়। যদি বেগম জিয়াকে জেল থেকে মুক্ত করতে হয় এই সরকারের পরিবর্তন ছাড়া সম্ভব না। কেউ যদি মনে করেন অনুনয়-বিনয় করে ভারতের কাছে গিয়ে এই সরকারের কাছে গিয়ে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনবেন, এটা সম্ভব নয, লড়াই ছাড়া গণতন্ত্রের পুনরুদ্ধার সম্ভব না। ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলনের মাধ্যমে দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে।’
বিডি২৪লাইভ