গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল প্রকার সন্ত্রাস ও দুর্নীতিকে জিরো টলারেন্স করছেন। আমি তার কর্মী হিসেবে বলছি, আমার হয়ে এলাকায় কেউ ন্যূনতম অবিচার বা দুর্নীতি করলে আপনারা তার দাঁতভাঙ্গা জবাব দেয়াসহ আমাকে জানাবেন। এ এলাকার কোন মানুষ যেন কোন প্রকার অবিচার বা সন্ত্রাসের স্বীকার না হন সেদিকে সকলে খেয়াল রাখবেন। ভালো কাজের মাধ্যমে আমি আপনাদের মাঝে বেঁচে থাকতে চাই।
শুক্রবার রাতে নাজিরপুর উপজেলার শ্রীরামকাঠী ইউজেকে মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের উদ্যোগে ১৬ দলীয় নাইট ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।



এ সময় তিনি আরও বলেন, আমার প্রিয় নেতা জাতির পিতার সর্বকনিষ্ঠ সন্তান শেখ রাসেলকে ঘাতকরা নির্মমভাবে হত্যা করেছিলো। তারা জাতিকে নেতা শূন্য করতেই এ হত্যাকান্ড চালিয়েছিল।

তিনি যুবকদের খেলার প্রতি আকৃষ্ট ও মাদকের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ার আহ্বান জানান। এ সময় তিনি দলমতসহ সকল ভেদাভেদ ভুলে সকলকে নিয়ে এলাকার উন্নয়ন করতে চান বলে জানান।

শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের উপজেলা শাখার সভাপতি মো. ছিদ্দিকুর রহমান তুহিনের সভাপতিত্বে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি এম খোকন কাজী ও শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের উপজেলা শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এসএম রোকনুজ্জামানের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত ওই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগ উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মাস্টার অমূল্য রঞ্জন হালদার, উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এম মোশারেফ হোসেন খান, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এসএম বেলায়েত হোসেন, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও সোহরাওয়ার্দী সরকারী কলেজের ভিপি এসএম বায়েজিদ হোসেন, নাজিরপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান রঞ্জু, কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় নেতা আতিয়ার রহমান চৌধুরী নান্নু, জেলা কৃষকলীগ সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান চাঁন মিয়া মাঝি, ব্যারিস্টার শেখ রাসেল, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. আলতাফ হোসেন বেপারী, ইউপি চেয়ারম্যান উত্তম কুমার মৈত্র, জেলা পরিষদের সদস্য তুহিন হালদার তিমির, উপজেলা ছাত্রলীগ আহ্বায়ক মো. তরিকুল ইসলাম চৌধুরী তাপস প্রমুখ।

সূত্র:আমাদের সময়