সোমবার রাতে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শেরেবাংলা হলে এক ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় এখনো পর্যন্ত ১০ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে বেশিরভাগই বুয়েটে ছাত্রলীগের নেতা।চকবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ. সোহরাব হোসেন জানিয়েছেন গ্রেফতার সবাইকে ডিবি অফিসে রাখা হয়েছে। এ দিকে বুয়েটে এত বড় একটি নেক্কার জনক ঘটনা ঘটে গেছে অথচ এখনও দেখা মেলেনি বুয়েট ভিসির। এ নিয়ে এখন চলছে আলোচনা সমালোচনা। এবার এ নিয়ে মুখ খুললেন আওয়ামিলীগের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।
তিনি জানান বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)-এর উপাচার্য অসুস্থ।
তিনি আরো বলেন, বুয়েটের ভিসি অসুস্থ বলে এখনও শিক্ষার্থীদের কাছে যাননি, তবে তিনি যাবেন।

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় আওয়ামী লীগ দায় নেবে কী না এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ক্ষমতাসীন দলে অনেকেই ঢুকে পড়ে। এখানে দেখার বিষয়ে এক্ষেত্রে আমাদের ভূমিকা কী। অপকর্ম করে কেউ পার পায় না, পাবে না। বিএনপির সময় অপকর্মের বিরুদ্ধে কোনো প্রশাসনিক বা দলীয় ব্যবস্থা ছিল না। কিন্তু আওয়ামী লীগ সকল অপকর্মের বিরুদ্ধে।

তিনি বলেন, আমরা সাংগঠনিকভাবে ব্যবস্থা নেই এবং প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেই। প্রশাসন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মনোভাব জানে এবং তাই কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছে। ৫ মিনিটের মধ্যে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়েছে। বিচার প্রক্রিয়া চলছে। একদিনেই তো আর বিচার করা যায় না।

বুয়েটে ছাত্র হত্যা নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় আন্দোলন হওয়ার মতো পরিবেশ হচ্ছে-এ বিষয়ে আপনারা প্রস্তুত কী না, এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, কোথাও আন্দোলনের ছোট ঢেউও নেই। ছাত্রলীগের গুটিকয়েক অপরাধ করলে বা যুবলীগের গুটিকয়েক অপরাধ করলে সেটার জন্য গোটা সংগঠন দায়ী নয়। দলের পরিচয়ে কেউ অপকর্ম করলে ছাড় পাবে না।

জামায়াত-শিবির নিষিদ্ধ করা হবে কী না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনে দলের তালিকায় জামায়াত নেই। জামাত-শিবির নিষিদ্ধের বিষয়টি আদালতে বিচারাধীন। এটা আদালতের বিষয়।


বিচারহীনতার কারণে বারবার ছাত্র হত্যার ঘটনা ঘটছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, বিচারহীনতা নেই। প্রতিটি ঘটনার বিচার হয়েছে। চাঁদের ঔজ্জ্বল্য আছে। ছোট কালিমা চাঁদের ঔজ্জ্বল্য ম্লান করতে পারে না।

এ সময় বিএনপির সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপির কথাবার্তার কোনো ঠিক-ঠিকানা নেই। তারা নেতিবাচক রাজনীতি ও কথাবার্তা দিয়ে টিকে থাকার চেষ্টা করছে। বিএনপি বলে তারা এত জনপ্রিয় দল, রংপুরে তারা এত কম ভোট কেন পেলো?

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন- যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হারুন-অর-রশিদ, উপ-দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ।

আজ মঙ্গলবার আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে সমসাময়িক রাজনৈতিক ইস্যুতে আয়োজন করা হয় এক সংবাদ সম্মেলন।এ সময় সাংবাদিকরা আবরারের বিষয় প্রশ্ন করলে এসব কথা জানান ওবায়দুল কাদের। এই সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী সহ আরো অনেকেই।