একাদশ সংসদ নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট চাইতে নাহিদ ইসলাম নামের এক যুবক চাকরি ছেড়ে রাজধানীর রাস্তায় প্রচারণায় নেমেছেন। রাজধানীর ৬০ ফিটের বারেক মোল্লার মোড়ে ভাড়া বাসায় থাকা নাহিদের গ্রামের বাড়ি ফরিদপুরের সদরের চর কমলাপুর।
শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর কারওয়ার বাজার এলাকায় একটি হ্যান্ডমাইক নিয়ে নৌকা মার্কায় ভোট চাইতে দেখা যায় নাহিদকে। লাল সবুজের টুপি ও জার্সি পরে তিনি কেবলই বলে চলেন, ’ভাইবোনদের বলে যাই নৌকা মার্কায় ভোট চাই। নৌকা মার্কায় দিলে ভোট শান্তি পাবে দেশের লোক।’
এগিয়ে পরিচয় জানতে চাইলে নাহিদ বলেন, আমার গ্রামের বাড়ি ফরিদপুরে। রাজধানীর একটি বাড়িতে প্রাইভেট কার চালাই। সামনে একাদশ সংসদ নির্বাচনের জন্য আমি আমার চাকরি থেকে এক মাসের ছুটি নিয়েছি। আজ ১ ডিসেম্বর থেকে নির্বাচনের আগের দিন পর্যন্ত নৌকা মার্কায় ভোট চাওয়ার জন্য আমি এ ছুটি নিয়েছি। বিষয়টি ভালো করে আমার স্যারকে বোঝানোর পর তিনি আমাকে ছুটিও দিয়েছেন। ২৪ বছর আগে আমার বাবা মারা গেছেন। তারপর আমার যারা অবিভাবক রয়েছেন তাদেরকেও বলেছি তারা আমাকে বাধা দেয়নি। আমার স্ত্রীরও এ বিষয়ে সমর্থন রয়েছে।
তিনি আরো বলেন, আমি কখনো রাজনীতি করিনি। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাজ, তার কথাবার্তা আমার ভীষণ ভালো লাগে। সেই ভালো লাগা থেকেই নিজের অর্থ ও শ্রম ব্যয় করে আমি নৌকা মার্কায় ভোট চাইতে মাঠে নেমেছি।
আমার অনেক বন্ধবান্ধব আছে তারা আমার এ কষ্ট দেখে হয়তো নৌকাতেই ভোট দিবে। এছাড়া রাস্তায় অনেক মানুষ যাতায়াত করে তারাও আমার এটাতে প্রভাবিত হয়ে নৌকায় ভোট দিবে। ফলে নৌকায় ভোট ক্রমেই বৃদ্ধি পাবে। সকালে ৬০ ফিট, শ্যামলী, কল্যাণপুর, আঁগারগা, খামারবাড়ি, ফার্মগেট হয়ে এখন কারওয়ান বাজারে। প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত আমার এ প্রচারণা চলবে ঢাকা শহরের বিভিন্ন জায়গায়।
দেশ ও মানুষের শান্তির জন্য সবার কাছে আমার একটাই দাবি তারা যেনো নৌকা মার্কায় ভোট দেয় বলেও জানান নাহিদ ইসলাম।