ভারতের ইতিহাসে প্রথমবারের মত ঘটতে চলেছে একটি ঘটনা। স্বাধীনতা অর্জনের পর প্রথমবারের মত এমন ঘটনার সাক্ষী হতে যাচ্ছে দেশটি। জানা গেছে’/হ’/ত্যা’/ মামলায় স্বাধীন ভারতে প্রথম নারী হিসেবে ফাঁ/’’/সি ’হতে পারে উত্তরপ্রদেশের শবনম আলীর (৩৮)। জানা গেছে, শবনমের প্রা’/ণ’/ভি’/ক্ষা’/র আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন রাজ্যপাল এবং রাষ্ট্রপতি। ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, মৃ’/ত্যু’/ পরোয়ানা জারির পরই সম্ভবত তার মৃ’/ত্যু’/দ’/ণ্ড’/ কার্যকর করা হবে।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

মামলা সূত্রে জানা যায়, ইংরেজিতে স্নাতকোত্তর করে গ্রামের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়াতেন শবনম। এর মধ্যে সেলিম নামের এক ব্যক্তির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে তার। যা নিয়ে আপত্তি ছিল শবনমের পরিবার। পরে ঘটনাক্রমে ২০০৮ সালের ১৪ এপ্রিল প্রেমিকের সঙ্গে পরিকল্পনা করে নিজের বাবা, মা, দুই ভাই, দুই বৌদি এবং ১০ মাসের ভাইপোকে ’খু’/ন’/ করে।

প্রাথমিকভাবে শবনম দাবি করেছিল, অজ্ঞাতপরিচয় ’/দু’/ষ্কৃ’/তী’/রা’/ হা’/ম’/লা’/ চালিয়েছে। যদিও পরে স্বীকার করে, মা’/দ’/ক’/জা’/তী’/য় কোনও দ্রব্য মিশ্রিত দুধ খাইয়েছিল পরিবারের সদস্যদের। তারপর ’/খু’/ন’/ করেছিল। ২০১০ সালে আমরোহার নিম্ন আদালত। শবনম এবং সেলিমকে মৃ’/ত্যু’/দ’/ণ্ডে’/র সাজা দিয়েছিল। পরে এলাহাবাদ হাইকোর্ট এবং সুপ্রিম কোর্টেও আবেদন করেছিল তারা। কিন্তু গত বছরের জানুয়ারিতে তা খারিজ হয়ে যায়।

এ দিকে এই রায়টি সত্যি সত্যি কার্যকর হলে নতুন এক ইতিহাস সৃষ্টি হবে পুরো ভারত বর্ষে। সকলেই এখন এটা নিয়ে বেশ আলোচনায় মেতে উঠেছে। এবং সেই সাথে তারা আইনের প্রসংশায়ও মেতে উঠেছেন। শবনম আলি অপরাধী হলেও থেকে যাবেন ভারতের আইনের ইতিহাসের পাতায়।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display