নকআউটপর্বের রোমাঞ্চে বিশ্বকাপ এখন আরও বেশি উত্তপ্ত। তবে রাশিয়া বিশ্বকাপের সেই উত্তাপে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর গা পুড়ছে না। দ্বিতীয় রাউন্ডে উরুগুয়ের কাছে হেরে যবনিকা ঘটেছে রোনালদোর পর্তুগালের বিশ্বকাপ মিশনের। বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন ভেঙে যাওয়ার পর রিয়াল মাদ্রিদ সুপারস্টার এখন মনোযোগ দিয়েছেন নিজের ভবিষ্যতের \’ঘর\’ ঠিক করার দিকে! রিয়াল ছেড়ে জুভেন্টাসে যোগ দিতে চান রোনালদো, এই খবর বিশ্বকাপের গণগণে উত্তেজনার মধ্যেই ছড়িয়ে পড়ে। দিন কয়েক আগে ছড়িয়ে পড়া এই খবরটিকে এবার নতুন মাত্রা দিল তাত্তোস্পোর্টস। ইতালিয়ান ক্রীড়া দৈনিকটির দাবি, রোনালদোকে কেনার আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে জুভেন্টাস!
শুধু প্রকিয়া শুরু করা নয়। তাত্তোস্পোর্টসের দাবি, রাশিয়ায় এরই মধ্যে রোনালদোর সঙ্গে আলোচনাও সেরে ফেলেছে জুভেন্টাস। ইতালিয়ান জায়ান্টদের নাকি এক রকম পাকা কথাও দিয়ে ফেলেছেন রোনালদো। তাত্তোস্পোর্টসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জুভেন্টাসের সঙ্গে ৩৩ বছর বয়সী রোনালদোর চুক্তিটা হবে ২০২২ সাল পর্যন্ত। আর ইতালিয়ান ক্লাবটিতে তার বার্ষিক বেতন হবে ৩০ মিলিয়ন ইউরো! এখন বাকি শুধু রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে চুক্তির অঙ্ক নিয়ে দর দাম করা।
গত ২৬ মে লিভারপুলকে হারিয়ে টানা তৃতীয় এবং সব মিলে ১৩তম চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জেতে রিয়াল। কিয়েভে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেই শিরোপা জয়ের পরই তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় রিয়াল ছাড়ার ইঙ্গিত দেন রোনালদো। এরপর থেকে একের পর এক খবরে তার রিয়াল ছাড়ার সম্ভাবনাই জোরালো হয়েছে।?1530628010293
বেতন-ভাতা নিয়ে সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজসহ রিয়ালের কর্তাদের সঙ্গে রোনালদোর মনোমালিন্য অনেক দিন ধরেই। কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগে স্প্যানিশ আয়কর কর্তৃপক্ষের মামলার বিষয়টি নিয়ে রিয়াল কর্তাদের সঙ্গে রোনালদোর দূরত্ব তৈরি হয়। যার ফলে, ২০১৬-১৭ মৌসুম শেষেও রিয়াল ছাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন রোনালদো। কিন্তু শেষ পর্যন্ত রিয়ালেই থেকে যান তিনি। কোচ জিদান তার হয়ে রিয়াল কর্তাদের সঙ্গে দেনদরবার করেছেন। কিন্তু এবার পরিস্থিতিটা ভিন্ন।
রিয়ালে রোনালদোর সবচেয়ে বড় অভিভাবক ছিলেন কোচ জিনেদিন জিদান। কিন্তু সেই জিদান চ্যাম্পিয়ন্স লিগের টানা তৃতীয় শিরোপা জিতিয়েই রিয়ালের কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। জিদান চলে যাওয়ায় রিয়ালে রোনালদো এখন হয়ে পড়েছেন অভিভাবকহীন। তিনি নাকি তাই রিয়াল ছাড়ার পাকা সিদ্ধান্তই নিয়ে ফেলেছেন। আর রিয়াল ছেড়ে তিনি নাকি জুভেন্টাসকেই ভবিষ্যতের ঠিকানা হিসেবে বাছাই করেছেন।?1530628030685
সদ্য শেষ হওয়া মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে জুভেন্টাসের মাঠে গিয়ে বিশেষ অভ্যর্থনা পেয়েছিলেন রোনালদো। কোয়ার্টার ফাইনালের সেই প্রথম লেগে মূলত রোনালদোর কাছেই হারে জুভেন্টাস। রিয়ালের ৩-০ গোলের জয়ে রোনালদো করেন জোড়া গোল। যার একটি গোল ছিল দর্শনীয় ওভারহেড কিকে। ম্যাচ শেষে হারের হতশা ভুলে রোনালদোকে দাঁড়িয়ে করতালির মাধ্যমে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান জুভেন্টাস সমর্থকরা। প্রতিপক্ষ সমর্থকদের সেই ভালোবাসা রোনালদোর হৃদয় ছুঁয়ে যায়।
ওই ঘটনেই নাকি জুভেন্টাসের প্রতি আগ্রহী করে তুলেছে রোনালদোকে। তিনি নাকি মনে করছেন, জুভেন্টাসে গেলে সুখেই থাকবেন তিনি। আর জুভেন্টাসও পর্তুগিজ এই গোল-মেশিনকে কিনতে বিশেষ আগ্রহী। ইতালিয়ান সিরি আ\’তে একচ্ছত্র রাজত্ব করলেও অনেক দিন ধরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিততে পারছে না জুভেন্টাস। গত ৪ মৌসুমের মধ্যে দুবার ফাইনালে উঠেও ব্যর্থ হয়েছে তারা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিততে না পারার হতাশা মুছে ফেলতেই রোনালদোকে কেনার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে।
কিন্তু রিয়াল কি রোনালদোকে বিক্রি করবে? তাত্তোস্পোর্টস জানিয়েছে, জুভেন্টাসের কর্তারা গোপনসূত্রের মাধ্যমে জানতে পেরেছে, রোনালদোর ইচ্ছাকেই প্রাধান্য দেবে রিয়াল। রোনালদো চলে যেতে চাইলে রিয়াল নাকি জোর করবে না! সেটাই যদি হয়, তাহলে রোনালদোকে কেনার ৮০ শতাংশ কাজ তো সেরেই ফেলেছে জুভেন্টাস। শিকার রোনালদোকেই রাজি করিয়ে ফেলেছে।
তাত্তোস্পোর্টসের এই খবর সত্য হয় কিনা, সেটাই এখন দেখার।poriborton

 
.

News Page Below Ad