ঘটনার ৭ দিনেরও বেশি পার হয়ে গেলেও এখনো কোন ধরনের খোঁজ পাওয়া যায়নি ইসলামিক স্কলার ত্ব-হা আদনানের। নানা জায়গায় খোজ করেও পাওয়া যায়নি তকে। এ দিকে দেরীতে হলেও এবার তার নিখোঁজের এই ঘটনায় বেশ সরব হয়েছে পুলিশ। আদনানের নিখোঁজ রহস্য উদঘাটনে ৩টি প্রশ্নের উত্তর খুঁজছে পুলিশ। নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছানোর ১৮ মিনিটের পথ বাকি থাকতে স্ত্রীর ফোন কলের পর কী ঘটেছিল? তার হদিস মিলছে না।
কোনো পারিবারিক দ্বন্দ্বের কারণে গা-ঢাকা দিয়েছেন কিনা? নাকি তার প্রতিপক্ষ ইসলামিক দলের কেউ তাকে অপহরণ করেছে? নাকি আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কোনো ইউনিট তাকে তুলে নিয়ে গেছে? এসব প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে পুলিশের তদন্ত দল মাঠে নেমেছে।

সরকারের আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কোনো ইউনিট তাকে তুলে নিয়ে গেছে কিনা- এ বিষয়টি মানতে নারাজ রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা। তাহলে বিষয়টি তাদের জানার সুযোগ ছিল।

সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার (১০ জুন) নিখোঁজ হওয়ার দুই দিন আগে থেকেই আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান তার মাকে বলে আসছিলেন- তাকে মোটরসাইকেলে দুইজন লোক কিছুদিন ধরে অনুসরণ করছে। বিষয়টি নিয়ে তিনি উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। তারা কোনো ক্ষতি করতে পারে বলে তার সন্দেহ। কোন কারণে তার ক্ষতি করবে অনুসরণকারীরা তার কোনো তথ্য জানায়নি পরিবারের কাউকে। কিন্তু কারা কেন অনুসরণ করছে তার কোনো স্পষ্ট জবাব মাকে জানাননি। এ নিয়ে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে কোনো কিছু বলেননি।

তবে কী এমন ঘটেছিল যে কারণে তাকে কেউ অনুসরণ করে আসছিল। সে বিষয়েও পরিবারের কেউ কিছু বলছেন না। প্রথম স্ত্রীকে সংবাদমাধ্যমে কোনো কথা বলতে দেয়া হচ্ছে না। পরিবারের অন্য সদস্যের সঙ্গে বুধবার কথা বলে সব কিছু রহস্যাবৃত বলে মনে হয়েছে।

এ দিকে এই ঘটনায় এবার মুখ খুলেছেন রংপুর মহানগর পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার (কোতোয়ালি জোন) আলতাব হোসেন। তিনি জানিয়েছেন ইতিমধ্যে তার নিখোঁজ হবার ঘটনায় মামলা এবং জিডি নেয়া হয়েছে। খোজ নিয়ে জানা গেছে তার মা থানায় জিডিটি করেছেন। জিডির বিষয়ে তদন্ত চলছে।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display