করোনা এখনো পুরো পুরি নির্মুল হয়নি পৃথিবী থেকে। এখনো আক্রান্ত করে যাচ্ছে লাখো মানুষকে। তবে শুরুর দিকে এই করোনার সব থেকে বেশি খারাপ অবস্থার মধ্যে ফেলে দিয়েছিল ইউরোপের দেশ ইতালিকে। বাংলাদেশের অনেক প্রবাসি মানুষ এই করোনায় আক্রান্ত হয়েছে এই ইতালিতে বসেই। এ দিকে নতুন খবর এই যে, ইতালির রোমে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এক প্রবাসী সাংবাদিকের পরিবারের চার সদস্য। নাজমুল আহসান তুহিন নামের ওই সাংবাদিক বাংলাদেশি একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের ইউরোপ ব্যুরো প্রধান হিসেবে কর্মরত।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

করোনায় প্রথমে তিনি আক্রান্ত হলে পরে তার স্ত্রী-দুই সন্তানও আক্রান্ত হয়। বর্তমান তারা সবাই ডাক্তারের পরামর্শে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এ প্রসঙ্গে নাজমুল জানান, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি জ্বর, শরীর ব্যথা হলে ডাক্তারের শরণাপন্ন হন। পরে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হলে করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। এরপর পরই পর্যায়ক্রমে পরিবারের অন্য সদস্যরাও আক্রান্ত হন।

তিনি ব্যবসার পাশাপাশি জয়যাত্রায় টেলিভিশনের ইউরোপ ব্যুরো হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ইতালি প্রবাসী বাংলাদেশি কমিউনিটির সবার কাছে তিনি দোয়া চেয়েছেন। যেন শিগগিরই সুস্থ হয়ে কর্মস্থলে যোগ দিতে পারেন।

অন্যদিকে এখনও ইতালিতে করোনার প্রাদুর্ভাব পুরোপুরি কমেনি। দৈনিক গড়ে দশ থেকে বার হাজারের বেশি করোনা শনাক্ত হচ্ছে এবং মৃত্যু প্রায় তিন থেকে চার শতাধিকের মতো।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল ৩ মার্চ ইতালিতে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ২০ হাজার ৮শ ৮৪ জন এবং মৃত্যুর সংখ্যা ৩৪৭ জন। এ পর্যন্ত ইতালিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৯৬ হাজার। মৃ’/ত্যু’/র’/ সংখ্যা ৯৮ হাজার ২৮৮ জন এবং সুস্থ হয়েছে ২ লাখ ৪৩ হাজার।

চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া এই করোনা ভাইরাসে এখনো আক্রান্ত হচ্ছে অনেক মানুষ। তবে এখন চলে এসেছে একটি নিয়ন্ত্রনের মধ্যে। ভ্যাকসিন আবিষ্কার হবার পর থেকে অনেকের মন থেকে দুর হতে শুরু করেছে এই করোনার ভ্যাকসিন।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display