দেশে আবারো পাওয়া গেল চরম দুর্নিতী পরায়ন একজন মানুষকে। যিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রনলায়ের একজন ড্রাইভার। তবে সম্প্রতি তার সকল কু-কৃর্তি ফাঁস হয়ে গেছে সবার সামনে। সামান্য একজন ড্রাইভার হয়ে তিনি কামিয়ে নিয়েছেন শত শত কোটি টাকার সম্পদ। আর এটিই এখন সারা দেশের আলোচনার বিষয় হয়ে দাড়িয়েছে।
এ দিকে র‍্যাবের হাতে আটক হওয়া স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিবহন পুলের ড্রাইভার আব্দুল মালেক প্রসঙ্গে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব আবদুল মান্নান বলেছেন, দুর্নীতি করে পার পাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। যারাই দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত থাকুক, মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে শক্ত অবস্থানে।
সোমবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ড্রাইভার মালেককে কেন এখনো বরখাস্ত করা হচ্ছে না, এ ব্যাপারে আজই জানতে চাওয়া হবে বলেও জানান স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব আবদুল মান্নান।

এ সময় করোনার দ্বিতীয় প্রাদুর্ভাব মোকাবিলার বিষয়ে তিনি বলেন, আমরা সব ধরনের প্রস্তুতি নিচ্ছি। এরইমধ্যে হাসপাতাল, চিকিৎসক এবং নার্স সংক্রান্ত সব প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

সারাবিশ্বে ৯টি কোম্পানি ভ্যাকসিন নিয়ে কাজ করছে উল্লেখ করে সচিব জানান, এদের মধ্যে পাঁচটি কোম্পানির সঙ্গে বাংলাদেশের যোগাযোগ চলছে। ভ্যাকসিনের জন্য অর্থ বরাদ্দ আছে। যেকোনো সময় চাইলে আমরা তা ব্যবহার করে ভ্যাকসিন সংগ্রহ করতে পারবো। ১০০ মিলিয়নের উপরে টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এর উপরে প্রয়োজন পড়লেও অন্য যেকোনো প্রকল্প থেকে নেয়া হবে।

এ দিকে দেশের করোনা পরিস্থিতি সামাল দেয়া নিয়েও কথা বলেন তিনি। বিশেষ করে করোনার পরিস্থিতি এবং করোনার ভ্যকসিন দেশে আনা নিয়েও কথা বলেন তিনি। এ সময় তিনি বাইরের দেশের করোনার ভ্যাকসিন বাংলাদেশে ট্রায়ালের কথা উল্লেখ করে জানান,যারা বাংলাদেশে ট্রায়াল শুরু করতে চেয়েছে, তাদের কাছে চিঠি দিয়ে জানতে চেয়েছি, কী প্রক্রিয়ায় ট্রায়াল শুরু করা হবে।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display