বাংলাদেশে করোনার বর্তমান পরিস্থিতি বেশ শোচনীয়। প্রতিনিয়তই দেশে বেড়ে চলছে করোনার সংক্রমণের সংখ্যা। আর তাই অন্যান্য সব দেশের মত বাংলাদেশও এখন ছুটছে করোনার ভ্যাকসিনের জন্য। এ দিকে আগামী ১৫ জানুয়ারির পর থেকে দেশে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।রবিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরে ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউটের সঙ্গে ভ্যাকসিন সংক্রান্ত চুক্তি সই হওয়ার পর তিনি এ তথ্য জানান।
কবে নাগাদ ভ্যাকসিন আসতে পারে দেশে- এ বিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা আশা করছি, ১৫ জানুয়ারি পর আমরা এই ভ্যাকসিন পাব। এর আগে অবশ্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন লাগবে। আমাদের ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের অনুমোদনের বিষয়টিও আছে। আমরা আশা করছি, শিগগিরই আমরা এটি পাব।

জানা গেছে, এই চুক্তির অধীনে জানুয়ারি থেকে শুরু করে পরবর্তী ছয় মাসে ৫০ লাখ করে মোট তিন কোটি ভ্যাকসিন পাবে বাংলাদেশ।
অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও ব্রিটিশ-সুইডিশ ওষুধ নির্মাতা অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনটি ভারতে উৎপাদন করে সিরাম ইনস্টিটিউট। বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের মাধ্যমে এই ভ্যাকসিনটি বাংলাদেশ নিয়ে আসছে।

চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া এই করোনা ভাইরাস এখন বাংলাদেশেও চালাচ্ছে তার তান্ডব। করোনায় এখন দেশে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে ৫ লাখ। আর সেই সাথে করোনায় দেশে প্রাণহানীর সংখ্যাও এখন ছাড়িয়ে গেছে ৭ হাজার।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display